Ticker

6/recent/ticker-posts

প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে জটিল ও ব্যয়বহুল রোগে সবোর্চ্চ ২ লাখ টাকা আর্থিক সহায়তা পেতে পারেন

 

প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে জটিল ও ব্যয়বহুল রোগে সবোর্চ্চ  ২ লাখ টাকা আর্থিক  সহায়তা পেতে পারেন

প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে জটিল ও ব্যয়বহুল রোগে সবোর্চ্চ  ২ লাখ টাকা আর্থিক  সহায়তা পেতে পারেন


প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে কর্মরত কোন কর্মচারী নিজে যদি কোন জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে দেশে বা দেশের বাইরে চিকিৎসা করালে  চিকিৎসা সাহায্য তহবিল থেকে  সমস্ত চাকরি জীবনে এক বা একাধিকবারে সর্বোচ্চ ২ (দুই) লাখ টাকা আর্থিক সাহায্য পেতে পারে। এজন্য সেবাপ্রার্থীকে বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ডের নির্ধারিত আবেদন ফর্ম [ফরম নং ০৮ ] পূরণ করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদিতে প্রতিস্বাক্ষরপূর্বক মহাপরিচালককে অ্যাড্রেস করে বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড, প্রধান কার্যালয়, ১ম ১২তলা সরকারি অফিস ভবন, সেগুনবাগিচা, ঢাকা বরাবরে একটি ফরওয়ার্ডিং(অগ্রায়ন পত্র) চিঠির মাধ্যমে প্রেরণ করতে হয়। 


কোন কোন রোগের ক্ষেত্রে এই সহায়তা পাওয়া যায়:


(১)হার্ট ষ্ট্রোক;

(২)ব্রেইন ষ্ট্রোক;

(৩)বাইপাস সার্জারী;

(৪)হার্টে রিং পড়ানো;

(৫)ক্যান্সার; 

(৬)কিডনী ডায়ালাইসিস;

(৭) কিডনী ট্রান্সফার এবং 

(৮)মারাত্মক দূর্ঘটনাজনিত অঙ্গহানি।



কি কি কাগজপত্র লাগবেঃ


(১)সেবাপ্রার্থীর [কর্মচারী/আবেদনকারী]  এনআইডি কার্ডের[NID] সত্যায়িত কপি;

(২)চিকিৎসা সংক্রান্ত মূল কাগজপত্র যেমন ছাড়পত্র, ব্যবস্থাপত্র ও ঔষধ কেনার ভাউচার);

(৩)কর্মচারীর চাকরি বহির[Service Book] ৩য় পৃষ্ঠার সত্যায়িত কপি/ S.S.C পরীক্ষায় পাশের সনদের সত্যায়িত কপি;

(৪)চিকিৎসা সংক্রান্ত খরচের ব্যয়বিবরণী[কম্পিউটারে কম্পোজ করে  প্রিন্ট করে নিতে হবে]

(৫)ব্যাংকের একাউন্ট নম্বর ও শাখার নাম এবং রাউটিং নম্বর [এ বিষয়টি নিশ্চিতকরণার্থে চেক বইয়ের কভারের অংশ ফটোকপিসহ জমা দিতে হবে];

(৬) ২০১৫ সালের Pay Fixation  এর ফটোকপিতে সংশ্লিষ্ট হিসাবরক্ষণ অফিসের প্রতিস্বাক্ষরসহ কপি।



কত দিনের মধ্যে রেজাল্ট পাওয়া যাবে:


মাত্র ৪৫ দিনের মধ্যেই ৩টি কমিটি [স্থায়ী মেডিকেল বোর্ড,অভ্যন্তরীণ যাচাই বাছাই কমিটি ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ব্যবস্থাপনা কমিটি] কর্তৃক পরীক্ষা নিরীক্ষা করে চূড়ান্ত অনুমোদন প্রদান করা হয়। তারপর সেবাপ্রার্থীর নামে  Sanction  কৃত অর্থ সেবাপ্রার্থীর ব্যাংক একাউন্টে EFT এর মাধ্যমে পৌঁছে দেওয়া হয়ে থাকে।বিষয়গুলো সেবা গ্রহীতার মোবাইল নাম্বারে এসএমএসের মাধ্যমেও জানানো হয়ে থাকে। 


ফর্ম ডাউনলোডঃ ফরম নং ০৮

১। পিডিএফ আকারে ফর্ম 


Post a Comment

0 Comments